নিজের খেয়ালখুশিকে জায়েজ করার ‘ফিকহ’ অনুসরণ করা লোকেদের

নিজের খেয়ালখুশিকে জায়েজ করার ‘ফিকহ’ অনুসরণ করা লোকেদের একটা কমন বৈশিষ্ট্য হল ট্র‍্যাডিশানাল স্কলারশিপকে আক্রমন করা। ‘দেশে আলিম নেই, মাদ্রাসায় পড়া লোকেরা কুয়োর ব্যাঙ পাশরা আলিম না, মদীনাতে যারা পড়ে তারা সব সৌদি দালাল, সালাফিদের বুঝ আক্ষরিক বুঝ সফিস্টিকেইশান নেই- এসব কথা নিয়মিত মডারেট ও মডার্নিস্টদের বলতে দেখবেন। এগুলোর মূল পয়েন্ট হল, সব বিরোধিতাকে এক খোচায় নাকচ করা। যেহেতু কেউ কিছু বোঝে না তাই কেউ আমার কথার বিরোধিতা করলে সেটা ভ্যালিড না। আমি যেটা বললাম সেটাই উচ্চমার্গের জ্ঞান। যারা বিরোধিতা করে সবাই মূর্খ।
.
মডারেট এবং মডার্নিস্টদের জন্য এই ট্যাকটিক ব্যবহার করা অবধারিত। আর কোন ভাবে তারা অথোরিটি বা কর্তৃত্ব দাবি করতে পারে না। তাদের অদ্ভূত, বিচ্ছিন্ন অবস্থান এবং জগাখিচুড়ি উসুল ইলমী ও দালিলিকভাবে টেকে না। তাই একমাত্র উপায় হল এক ধাক্কায় সবার লেজিটিমেসিকে অস্বীকার করা। তারপর ‘আমার মনে হয়’ আর ‘অমুক ইউটিউব আল্লামা বলেছেন…’, বলে নিজ অবস্থানের বৈধতা তৈরির চেষ্টা করা।

© আসিফ আদনান

Related Post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *